আইনী লড়াই শেষে ১০ হাজার নিয়োগ: রেলমন্ত্রী


নিউজ, ১১ জানুয়ারী:
রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক বলেছেন, ভগ্ন রেলপথকে পৃথক মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিয়ে ১০ হাজার জনবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। মামলা দিয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় বাধা দেয়ার চেষ্টা করছে বিএনপি-জামায়াত। আইনি লড়াই শেষে রেলপথ মন্ত্রণালয়ে জনবল নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উন্নয়ন মেলার আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রেলপথ মন্ত্রী বলেন, বিএনপি’র সময় রেল লাইন বা ইঞ্জিন কোনোটাই ছিলো না। তারা রেলের জমি বেদখল হতে দিয়েছে। আওয়ামীলীগ সরকার সেই বেদখলীয় জমিগুলো পুনরুদ্ধার করেছে। বাংলাদেশ রেলওয়েতে আজ ৪৬টি প্রকল্পের কাজ চলমান। বাড়ানো হচ্ছে আন্তঃনগর ট্রেনের সংখ্যা।

সরকারের ধারাবাহিকতা না থাকলে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকে না বলে মন্তব্য করেছেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তা বাস্তবায়ন করা আমার জন্য ফরজ।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন লালমনিরহাট কুড়িগ্রাম সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সফুরা বেগম রুমী। এছাড়া এদিন অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রেলপথ সচিব মোফাজ্জল হোসেন, রেলওয়ের মহাপরিচালক আমজাদ হোসেন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রেজাউল আলম সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এনএম নাসির উদ্দিন, ক্যাপ্টেন (অবসর) আজিজুল হক বীরপ্রতিক প্রমুখ।

লালমনিরহাটের মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি সৌধ মাঠে তিন দিনের উন্নয়ন মেলায় ৬৭টি স্টল অংশগ্রহণ করেছে। এছাড়া মেলায় প্রতিদিন বিকেলে থাকছে স্থানীয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।#

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.