ফুলবাড়ী পৌর র্কমর্কতা র্কমচারীদের ঢাকায় অবস্থান ধর্মঘট, ভোগান্তিতে পৌরবাসী

মেহেদী হাসান উজ্জল, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ভাতা ও পেনশন রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে প্রাপ্তির দাবীতে ঢাকা প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসুচি পালন করায় দিনাজপুররে ফুলবাড়ী পৌরসভার সকল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে, ফলে ভগান্তিতে পড়েছে পৌরবাসী।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ফুলবাড়ী পৌরসভা যথারিতি খোলা থাকলেও কর্মকর্তারা না থাকায় দপ্তর গুলোর কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।পৌরসভার সকল কর্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। পৌর এলাকার সেবা নিতে আসা লোকজন এসে সেবা না পেয়ে ফিরে যেতে দেখা গেছে। সন্ধ্যা নেমে আসলে পুরো শহর অন্ধকারআচ্ছন্ন হয়ে পড়ছে। শহরের বিভিন্ন অলি গলিতে ময়লা স্তুপ জমে রয়েছে।

বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন কেন্দ্রিয় কর্মসুচি হিসেবে। গত ১০ই মার্চ থেকে সারাদেশের সকল পৌর কর্মকর্তা কর্মচারীসহ ফুলবাড়ী পৌরসভার সকল র্কমর্কতা র্কমচারীগন বেতন ভাতা পনেশন সহ অন্যান্য সকল সুবিধা সরকারী কোষাগার থকে প্রাপ্তির দাবীতে অবস্থান কর্মসুচি পালন করছে। এ কারনে ফুলবাড়ী পৌরসভার সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকায় পৌর এলাকার মানুষ চরম ভোগান্তীতে পড়েছে।

পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ডের থানা পাড়া গ্রামের রতন, ৮নং ওয়ার্ডের কাঁটাবাড়ী গ্রামের মেনহাজ,২নং ওয়ার্ডের সুজাপুর গ্রামের আকবর জানান নাগরীক সনদ পত্র অতি জরুরী ভাবে প্রয়োজন হওয়ায় পৌরসভায় এসে দেখি পৌর কর্মকর্তারা নেই, সকল কার্যক্রম বন্ধ সে কারনে আমাদের ফিরে যেতে হচ্ছে। এতে আমাদের চরম সম্যসায় পড়তে হচ্ছে।

এদিকে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন, রংপুর বভিাগীয় কমটিরি সহ-সভাপতি ফুলবাড়ী পৌর সহকারী প্রকৌশলী মো. লুৎফুল হুদা চৌধুরী (লিমন) এর সাথে গতকাল রবিবার মুঠোফনে কথা বললে তিনি জানান আমরা অমাদের দাবী আদায়ের লক্ষ্যে সারাদেশের সকল পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঢাকায় এসে অবস্থান ধর্মঘট পালন করছি। আমাদের দবী না মানা পর্যন্ত আমরা এ আন্দোলন চালিয়ে যাবো। যতক্ষন না আমাদের দাবী মেনে নেয়া হচ্ছে আমরা ঘরে ফিরবো না।
একই কথা মুঠোফোনে জানান ফুলবাড়ী পৌরসভা র্কমর্কতা র্কমচারী এসোসিয়েশনের সভাপতি শহদিুল ইসলাম।

অপরদিকে ফুলবাড়ী পৌর মেয়র মূতুর্জা সরকার মানিক বলেন র্কমর্কতা র্কমচারীরা তাদের দাবী আদায়ের লক্ষ্যে কর্মস্থলে না থাকায় কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। সে কারনে সাধারন মানুষ ভোগান্তীতে পড়েছে। তবে খুব শিগগিরি কর্মকর্মকর্তা কর্মচারীদের এই যৌতিক দাবী সরকার বাহাদুর মেনে নিবে এবং তারা তাদের কর্মস্থলে ফিরে আসবে এ সমস্যা সমাধান হবে বলে তিনি আশা ব্যাক্ত করেন ।

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.