ফেনীর ফতেহপুর রেলওয়ে ওভারপাসের একাংশ উন্মুক্ত হল

শেখ আশিকুন্নবী সজীব,ফেনী প্রতিনিধি,
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যানজট নিরসনে অবশেষে উন্মুক্ত করে দেওয়া হলো নির্মাণাধীন চার লেইন বিশিষ্ট ফেনীর ফতেহপুর রেলওয়ে ওভারপাসের একাংশ।
এর ফলে মহাসড়কটি ব্যবহারকারীদের ভোগান্তি কমবে,ত্বরান্বিত হবে বাণিজ্য এমনটাই মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। মঙ্গলবার (১৫ মে) দুপুরে ওভারপাসের ঢাকামুখী অংশটি খুলে দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ার-ইন চিফ মেজর জেনারেল ছিদ্দিকুর রহমান সরকার, ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন বিগ্রেডের মহাপরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল রেজাউল মজিদ, অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্ণেল জাকারিয়া হোসেন, প্রকল্প পরিচালক লেঃকঃ মোঃ রোমিও নওরিন খান, নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান আল আমিন কনস্টাকশনের চেয়ারম্যান কবির আহমদ প্রমুখ।

এর আগে আজ মঙ্গলবার বিকেলের মধ্যে নির্মাণাধীন এ ওভারপাসের একাংশ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য, ফতেহপুর রেলওয়ে ওভারপাসের দৈর্ঘ্য ৮৬.৭৯ মিটার, এপ্রোচ রোডের দৈর্ঘ্য ৭৫৫ মিটার, এর মধ্যে ঢাকার দিকে ৩৪৭ মিটার, চট্টগ্রামের দিকে ৪০৮ মিটার, সর্বমোট গার্ডার ৩০টি, পিলার ৮টি, পাইল ৪৯০ টি, প্রকল্পের ব্যায় ধরা হয়েছে ১শ ৫ কোটি ৭ লাখ টাকা ।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, যানজট নিরসনে মহাসড়কের এ অংশে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অধীনে ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারিতে শিপু বিপিএল নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওভারপাস নির্মাণ কাজ শুরু করে।
কার্যাদেশ পাওয়ার তিন বছরে মাত্র ৩০ শতাংশ কাজও শেষ করতে পারেনি তারা। ঠিকাদারের গাফিলতি ও স্থানীয় চাঁদাবাজদের কারণে এক পর্যায়ে ওই ঠিকাদার কাজ ছেড়ে পালিয়ে যায়।
পরে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে আল আমিন কনস্ট্রাকশন নামে আরেকটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজটি দেওয়া হয়। গত বছরের এপ্রিল থেকে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ওভারপাসটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। #

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.