বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাহার ফের পুরোদমে কয়লা উত্তোলন শুরু


মুসলিমুর রহমান,
পার্বতীপুর বড়পুকুরিয়ায় টানা ২১দিন ধর্মঘটের পর একটি সমঝোতা বৈঠকের মাধ্যমে শ্রমিকরা খনিতে ফিরেছেন এবং কাজে যোগদান করেছেন। শুরু করেছেন আজ রোবার সকাল ৬ টার প্রথম শিফট থেকে কয়লা উত্তোলন। এর আগে শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত খনির মনমেলা মিলনায়তনে খনি কর্তৃপক্ষ শ্রমিক নের্তৃবৃন্দ পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামীলীগ নের্তৃবৃন্দ এবং ক্ষতি গ্রস্থ ২০ গ্রামের নেতাদের নিয়ে একটি সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে উভয় পক্ষে হাত মেলামেলির মধ্য দিয়ে একটি দীর্ঘ অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি ঘটে । বৈঠকে কি কি দাবী মেনে নেয়ার ভিত্তিতে সমঝোতা হয়েছে দুপক্ষই জানাতে অপরাগতা প্রকাশ করেছেন। তবে সূত্র জানিয়েছেন প্রধান শর্ত আগে কাজে যোগদান। তারপর পর্যায়ক্রমে দাবী মানার বিষয়। বিসিএমসিএল’র পক্ষে আলোচনায় নের্তৃত্ব দেন, এমডি প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহম্মেদ, বিসিএমসিএল সচিব ও জিএম (প্রশাসন) আবুল কাশেম প্রধানিয়া। শ্রমিকদের পক্ষে শ্রমিক নেতা রবিউল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আবু সুফিয়ান সহ ১০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। গ্রামবাসীর পক্ষে বুল বুল আহম্মেদ ও মিজানুর রহমানের নের্তৃত্বে ৭ সদস্যের টিম । তাদরে সাথে মধ্যস্থতায় অংশ নেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হাফিজুল ইসলাম প্রামাণিক ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন। এছাড়াও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম, মডেল থানার ওসি হাবিবুল প্রধান ও খনি তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস.আই সিরাজুল ইসলাম। উল্লেখ্য গত ১৩ মে থেকে শ্রমিকরা ১৩ দফা দাবি এবং খনির কারণে ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সংগ্রাম কমিটি ৬ দফা দাবি আদায়ে ধর্মঘট ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করে আসছিল। এ নিয়ে বিসিএমসিএল এবং ধর্মঘট কারীদের মধ্যে মারামারি মামলা পাল্টা মামলা পর্যন্ত পরিস্থিতি গড়ায়। অবশেষে পেট্রো বাংলার উচ্চ পর্যায়ে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। #

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.