দূর্নীতিবাজরা আগামী সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাবেন না, নির্বাচনী ট্রেন যাত্রায় ওবায়দুল কাদের


রাহেনুল ইসলাম মিঠু, ঈশ্বরদীঃ
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দূর্নীতিবাজরা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাবেন না। ক্লীন ইমেজের জনপ্রিয় নেতারাই দলীয় মনোনয়ন পাবেন। আজ শনিবার নির্বাচনী ট্রেন যাত্রার প্রথম উত্তোরাঞ্চল সফরের সময় ঈশ্বরদীর মুলাডুলি রেল ষ্টেশনে আওয়ামীলীগ আয়োজিত পথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ব্যানার, ফেষ্টুন, বিলবোর্ড লাগিয়ে নেতা হওয়া যায় না। নেতা হতে হলে অন্তরে জায়গা করে নিতে হয়। বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি গানের সুরে সুরে বলেন, কাগজে লিখো না নাম ছিড়ে যাবে, পাথরে লিখো না নাম ক্ষয়ে যাবে। তাই নেতা হতে হলে হৃদয়ে নাম লেখাতে হবে।

পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ভূমি মন্ত্রী আলহাজ্ব শামসুর রহমান শরীফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পথ সভায় ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আজকের এই পথ সভার মাধ্যমে আওয়ামীলীগের নির্বাচনী ট্রেন যাত্রা শুরু হয়েছে। সঠিক সময়ে তার গন্তব্যে ঠিকই পৌছাবে। বিএনপি যদি এবারও নির্বাচনে না আসে এই ট্রেন থেমে থাকবে না। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকার থাকলে দেশে উন্নয়ন হয়। তাই আগামী নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় আনতে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন, আওয়ামীলীগের বিকল্প বিএনপির চরিত্র হচ্ছে দূশাষন আর হাওয়া ভবন। তারা ক্ষমতায় থাকতে হাওয়া ভবনের মাধ্যমে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করেছে। বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপির আন্দোলন মরা গাঙ্গে জোয়ার আসার মতো’। তারা বার বার বলেছিলো ঈদের পর আন্দোলন, কোন ঈদের পর আন্দোলন তা জানতে চান তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, একে একে ১৬ টা ঈদ পার হয়ে গেছে, কোন আন্দোলন করতে পারেনি বিএনপি। দেশের জনগন বিএনপিকে আর ক্ষমতায় আনতে চায় না। এজেন্য তাদের ডাকে আর কেউ সাঁড়া দেয় না।

শনিবার সকাল ৮ টায় ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ট্রেন যাত্রার মাধ্যমে উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলোতে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করে আওয়ামী লীগ। এই সফরের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আওয়ামী লীগের এই সফর উপলক্ষে ঢাকা থেকে নীলফামারীগামী ‘নীলসাগর এক্সপ্রেস’ ট্রেনের একটি বগি রিজার্ভ করা হয়েছে। সফরে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন স্টেশনে পথসভা করার কথা রয়েছে। সফর শেষ হবে নীলফামারী গিয়ে। বেলা ১টায় নির্বাচনী সফরের ট্রেনটি ঈশ্বরদীর মূলাডুলি ষ্টেশনে এসে থামে। সেখানে ১৩ মিনিট বক্তব্য দিয়ে ট্রেনে চড়ে আবারও নীলফামারীর দিকে রওনা দেন নেতৃবৃন্দ।

ট্রেন সফরে অন্যান্য নেতাদের মধ্যে রয়েছেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন এমপি, বি. এম মোজাম্মেল হক এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি, দলের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল ও উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া প্রমুখ।

পথসভা পরিচালনা করেন পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি। সে সময় স্থানীয় নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক এমপি পাঞ্জাব আলী বিশ্বাস, ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব নায়েব আলী বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান মিন্টু, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসাহক আলী মালিথা, পাবনা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মাহজেবীন শিরিন পিয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি গোলাম মোস্তফা চান্না মন্ডল, মোহাম্মদ রশিদুল্লাহ্, মূলাডুলি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল খালেক মালিথা, সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন মিঠু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শিরহান শরীফ তমাল, সাধারণ সম্পাদক রাজিব সরকার, পৌর যুবলীগের সভাপতি আলাউদ্দিন বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম লিটন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল হাসান রনি ও সাধারণ সম্পাদক সুমন দাস প্রমূখ। #

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.