উত্তরের জেলা গুলোতে শুরু হয়েছে শীতের আগমনী বার্তা


মেহেদী হাসান উজ্জল,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
উত্তরের জেলা দিনাজপুর এ জেলায় প্রতি বছর মধ্য আশ্বিনের আগে ও কার্তিকের শুরুতেই হালকা থেকে মাঝারী বৃষ্টির মধ্য দিয়ে শুরু হয় শীতের আগমনী বার্তা।বৈশ্বিক উষ্ণতার কারণে জলবায়ু পরিবর্তন হলেও আশ্বিন-কার্তিক মাসে প্রতি বছরই বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের সৃষ্টি হয়। এর প্রভাাবে সারাদেশেই কয়েকদিন ধরে লাগাতার বৃষ্টি হয়। গত কয়েকদিন আগে এ আবহাওা বয়েগেছে ।

খোজ নিয়ে জানা গেছে,দেশের অন্যান্য জেলায় এই আবহাওয়ায় শীত অনুভূত না হলেও হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত দিনাজপুর,পঞ্চগড়সহ রংপুর বিভাগের কয়েকটি জেলায় রাতে শীত অনুভূত হচ্ছে।

সেই সাথে দিনভর রোদের কারনে একটু গরম লাগলেও বিকাল থেকেই শীতল হাওয়া আর সন্ধ্যার পর পরই কুয়াঁশাও ঝরতে শুরু করেছে। রাতে হালকা থেকে মাঝারী কুয়াশা ঝরছে। মধ্য রাতের পর টিনের চালা থেকে পড়ছে হালকা বৃষ্টির মতো কুয়াশার পানি। সাকালে উঠে দেখা মিলছে বিভিন্ন লতা, পাতা,গাছে যেনো শিশিরের অলংকার পড়েছে। তাই মানুষ রাতে ফ্যান বাদ দিয়ে এখন কম্বল-কাঁথা নেয়া শুরু করেছে।

এদিকে লেপ তৈরী করার মতো অনেকের সামর্থ থাকলেও কারো কারো সামর্থ নেই। প্রত্যন্ত অঞ্চলের নিম্ন আয়ের মানুষের শীতে একমাত্র অবলম্বন কাঁথা। তাই শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচতে এসব পরিবারের নারী সদস্যরা এখন কাজের ফাঁকে তাদের পুরনো কাঁথা মেরামত করার পাশাপাশি পুরনো শাড়ি-লুঙ্গি দিয়ে নতুন কাঁথা তৈরীতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। আবার অনেকে চেয়ে আছেন শীতবস্ত্র পাওয়ার অপেক্ষায়। যদিও সবার ভাগ্যে তা জোটেনা।

আর কৃষকরা অপেক্ষাকৃত উচুঁ জমিতে আবাদ করেছে শীতকালীন বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজি। ইতিমধ্যে কৃষকদের এ শাক-সবজি হাট-বাজার গুলোতে উঠতে শুরু করেছে। বর্তমানে শীতের শাক-সবজির দামও বেশ ভাল। তাই হাসি ফুটেছে কৃষকদের মুখেও। #

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.