দিনাজপুরে অপহরণের হাত থেকে বেঁচে ফিরলেন হাবিবুর

IMG_20160116_124346
বাসায় যাচ্ছিলাম, হঠাৎ তিনজন লোক কোত্থেকে এসে নাকে কি যেন লাগিয়ে দিল তারপর একটি মাইক্রোতে তুলে হাত-পা বাধল, এমনই কথা জানালেন দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার রাণীরবন্দরের হাবিবুর রহমান নামের এব যুবক। ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
পারিবারিক সূত্রে আরো জানাগেছে, শুক্রবার বিকেল ৫ টার দিকে উপজেলার রাণীরবন্দর সুইহারী বাজারের কংগ্রেস মাদ্রাসার সামনে ইব্রাহীম ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপের কর্মচারী যুবক হাবিবুর রহমান প্রতিদিনের মতো দিনের বেলা কাজ সেরে সুইহারী বাজারের এক দোকানে ওষুধ নেয়ার জন্য যাওয়ার পথে নুরুল ইসলাম চেয়ারম্যানের তেল পাম্পের সামনে তিন জন লোক তার নাকে কি যেন লাগিয়ে দেয়। শুধু বলতে পারে তাকে কারা যেন নিয়ে যাচ্ছে। রাণীরবন্দর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে একটি মাইক্রোবাসে তাকে তুলে এবং কালো কাপড় দিয়ে চোখ-মুখ ও হাত-পা বেঁধে দেয়। এর পর সে আর কিছু বলতে পারে না। সন্ধ্যা প্রায় সারে ৭ টার পরে তার জ্ঞান ফিরে আসলে সে দেখে সে মাইক্রোবাসে বসে ঝিমাচ্ছে, তার হাত খোলা,পার্শ্বে দুই জন। ওই দুইজনকে সে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দৌড়ে পালালিয়ে যায় এবং একটি ঝোপে লুকিয়ে পড়ে। অপহরণকারীরা খোঁজা-খুজি করার পর চলে গেলে। পরে সে মোবাইলে তার দোকান মালিক মোফাজ্জল হোসেনকে ঘটনাটি জানায়। তখন সে ঠাকুরগাঁয়ের কালিবাড়ি ব্রীজের বিজিবি ক্যাম্পের সামনে। পরে নাবিল গাড়ির সাথে আলোচনা করে রাত সাড়ে ১১টায় রাণীরবন্দরে এসে হাবিবুর রহমান পৌছায়। ঘটনায় এলাকায় তোলপার সৃষ্টি হয়েছে। কারন সাম্প্রতিক এধরনের অপহরণ ঘটনা রানীরবন্দরে আরো বেশ কয়েটি ঘঠেছে। এলাকাবাশী আইনশ্খৃংলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করে।

তারিক আবেদীন
দিনাজপুুর।