‘বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে’-যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেইক

index

বাংলাদেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকাণ্ড গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের নতুন হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেইক। ঢাকায় আসার পর নিজের প্রথম সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে সুসংহত করতে সব ধরনের সহযোগিতা দিতে আগ্রহী তার দেশ।

সংবাদ সম্মেলনে এসে অ্যালিসন ব্লেইক দীর্ঘদিনের সম্পর্কের কথা তুলে ধরে জানান, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরে সহযোগিতার পাশাপাশি দারিদ্র বিমোচন এবং সহিংস চরমপন্থা থেকে দুদেশের নাগরিকদের রক্ষায় যুক্তরাজ্য সরকার কাজ করবে।

যুক্তরাজ্যের নতুন হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেইক বলেন, একটি স্থিতিশীল, সমৃদ্ধ এবং নিরাপদ বাংলাদেশের ব্যাপারে বিশ্বাসী যুক্তরাজ্য। আমরা তুই দেশই সংসদীয় গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। আমরা বিশ্বাস করি বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক অভিযাত্রায় ও এর জনগণের জন্য আরো শক্তিশালী ও সমৃদ্ধ জাতি গঠনে আমরা সহযোগিতা করতে পারি। আইনের শাসনের মাধ্যমে বিকশিত সিভিল সোসাইটি নিয়ে গড়ে ওঠা গণতন্ত্র হচ্ছে সমৃদ্ধ ও স্থিতিশীল সমাজ বিনির্মাণের সবচে ভালো উপায়।

বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে কারিগরি ও আর্থিক সহযোগিতা দিয়ে থাকে যুক্তরাজ্য। পুলিশের সাম্প্রতিক ভূমিকা নিয়েও কথা বলেন ব্লেইক।

তিনি আরও বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগের কথা আমরা শুনে থাকি। আমরা এসব অভিযোগ গভীরভাবে পর্যবেক্ষক করছি। একই সময়ে আমরা আশাবাদী সরকার প্রতিটি অভিযোগ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করবে।

বৈশ্বিক নিরাপত্তা, জলবায়ু পরিবর্তনসহ বিভিন্ন ইস্যুতে ভবিষ্যতেও এক সঙ্গে কাজ করবে বলে জানান ঢাকায় প্রথম এই ব্রিটিশ নারী হাইকমিশনার।