ঠাকুরগাঁওয়ে গাছের সঙ্গে শত্রুতা!

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :  ঠাকুরগাঁওয়ে নেংকু মোহাম্মদ নামের এক চাষির ১০ কাঠা জমিতে লাগানো ভুট্টাগাছ কেটে নিয়ে গেছে এক প্রতিবেশি। এতে ওই চাষি চোখে-মুখে অন্ধকার দেখছেন। শুক্রবার গভীর রাতে সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের ফকদনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে ভুট্টা ক্ষেতের মালিক নেংকু মোহাম্মদ বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগে ফকদনপুর গ্রামের মৃত দখলা মোহাম্মদের ছেলে বাদামু মোহাম্মদ সহ ৭ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। ভুট্টা ক্ষেতের মালিক নেংকু মোহাম্মদ বলেন, বাড়ির পাশে ২৫ শতক জমিতে দীর্ঘদিন ধরে ধান, গম, ভুট্টা, আলুসহ বিভিন্ন ফসল চাষাবাদ করে আসছিলেন তিনি। সর্বশেষ ওই জমিতে তিনি ভুট্টা রোপন করেছিলেন। ভুট্টার গাছগুলো বেশ বড়ও হয়েছিল। কিন্তু শুক্রবার গভীর রাতে প্রতিবেশি বাদামু মোহাম্মদ কয়েকজন নিয়ে এসে আমার ভুট্টাগাছগুলো কেটে নিয়ে যায়। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বাদামু মোহাম্মদের সঙ্গে জমিজমা নিয়ে আমার বিরোধ চলছিল। তাই বলে জমির ফসল কেটে নিয়ে যাওয়া ভাবাই যায় না। গাছের সঙ্গে এ কেমন শত্রুতা! যারা আমার ভুট্টা গাছ কেটে নিয়ে গেছে আমি তাদের শাস্তি চাই।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, ভুট্টা গাছ কেটে ফেলার একটি অভিযোগ পেয়েছি; অভিযোগটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তবে ভুট্টা গাছ কাটার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত বাদামু মোহাম্মদ।