এশিয়া উপমহাদেশে সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত দিনাজপুরে

নিজস্ব প্রতিনিধি : দিনাজপুর জেলা সদরে নির্মিত এশিয়া মহাদেশের সর্ববৃহৎ ঈদগাহ মাঠ গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে এবার আট লাখ মুসল্লির জন্য নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

সকাল ৯টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে এখানে। দিনাজপুর ছাড়াও আশপাশের জেলারগুলোর মুসল্লিরা ঈদের নামাজ আদায় করবেন এখানে। সুষ্ঠুভাবে নামাজ আদায়ের জন্য নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। দিনাজপুর ছাড়াও আশপাশের জেলারগুলোর অসংখ্য মুসল্লি ঈদের নামাজ আদায় করবেন এখানে।

দিনাজপুর গোর-এ শহীদ বড় ময়দানের আয়তন প্রায় ২৩ একর। অপরদিকে শোলাকিয়ার মাঠের আয়তন সাড়ে ৭ একর। গোর-এ-শহীদ বড় ময়দান এশিয়া মহাদেশের সর্ববৃহৎ।

দিনাজপুর ও আশেপাশের জেলার মানুষের আগ্রহ বেড়েছে এই সুবিশাল ময়দানে নির্মিত দৃষ্টি নন্দিত ঈদগাহ মিনারটির প্রতি। ৫২ গম্বুজ বিশিষ্ট প্রধান মিনারের উচ্চতা ৫৫ফুট ও প্রস্থে ৫১৬ ফুট।

এক সপ্তাহ ধরে দিনাজপুর পৌরসভা ও এলজিইডি পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা বুল ডোজার ও ভাইব্রেটর মেশিন দিয়ে মাঠ সমান ও পরিচ্ছন্নতার কাজ করছেন। একসাথে ৮ লক্ষাধিক মুসুল্লির নামাজ আদায়ের জন্য ঈদগাহ মাঠের দু’পাশে মুসল্লিদের চলাচলের জন্য তৈরি করা হয়েছে প্রশস্ত রাস্তা।

মুসল্লিদের জন্য প্রকৃতির ডাকে সাড়া ও পানি পানসহ অযুর সুব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দিনাজপুর জেলা প্রশাসক।

ঈদগাহ মিনারটি নির্মিত হওয়ার পর থেকে লাখ লাখ মুসল্লি এই মাঠে নামাজ আদায় করছেন। এত বড় মাঠে নামাজ আদায় করতে পেরে নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করেন অনেকেই। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই ঈদগাহ মাঠে ঈদের নামাজ আদয়ের জন্য সাধারণ মুসুল্লিরা আসেন।

দিনাজপুরে ঈদের নামাজ যাতে সুশৃঙ্খলভাবে সম্পন্ন হয় এর জন্য জেলা পুলিশের পক্ষথেকে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। দূর-দুরান্ত থেকে আসা মুসুল্লিদের জন্য ব্যাপক নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি তাদের যানবাহন পার্কিং এর জন্য জেলা প্রশাসন থেকে আয়োজন করা হয়েছে। এমন কথা জানালেন, দিনাজপুর পুলিশ সুপার।

এশিয়া মহা দেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় ঈদগাহ প্রস্তত হওয়ায় দিনাজপুর বাসীর জন্য বাড়তি আনন্দ। এ ঈদের জামায়াত মুসলিম জাহানে কালের সাক্ষী হয়ে থাকবে। #