শিশুর মাথা নিয়ে যাওয়ার সময় গণপিটুনিতে যুবক নিহত

অনলাইন নিউজ ডেস্কঃ নেত্রকোনা শহরের নিউ টাউন এলাকায় ছয় থেকে সাত বছর বয়সী নিখোঁজ এক শিশুর কাটা মাথা ব্যাগে ভরে ঘোরাফেরার সময় এক যুবক গণপিটুনিতে মারা গেছে। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুর ১টার দিকে শহরের নিউ টাউন পুকুরপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে শিশুর কাটা মাথাসহ অজ্ঞাত ওই যুবক হরিজন পল্লী এলাকায় ঘোরাফেরা করছিল। বিষয়টি হরিজনদের দৃষ্টিগোচর হয়। পরে তাকে ধাওয়া করে নিউ টাউন পুকুরপাড়ে ধরে গণপিটুনি দেয়া হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই যুবকের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি মো. তাজুল ইসলাম, নাজমুল হাসান (তদন্ত), এসআই আওয়াল সরদার, শাখাওয়াত হোসেন, আলমগীর হোসাইনসহ মডেল থানার পুলিশ সদস্যরা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, জেলা শহরের কাটলী এলাকার রিকশাচালক রইস উদ্দিনের ছেলে মো. সজিব (৮) সকাল ১০টার দিকে আইসক্রিম খাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হয়। এরপর থেকে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি।

বেলা ১টার দিকে শহরের বারহাট্টা রোডের মেথর পট্টিতে এক যুবক শিশুটির মাথা ব্যাগে করে নিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় খণ্ডিত মাথাটি ব্যাগ থেকে পড়ে যায়। অজ্ঞাত ওই যুবক দৌড় দিলে এলাকাবাসী ধাওয়া দিয়ে নিউটাউন এলাকা থেকে তাকে আটক করে। একপর্যায়ে উত্তেজিত জনতার গণপিটুনিতে ওই যুবক নিহত হয়।

নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি মো. তাজুল ইসলাম জানান, শিশুটির কাটা মাথা ও নিহত যুবকের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নেত্রকোনা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুল ইসলাম জানান, গলাকাটা ওই শিশুটির নাম সজিব মিয়া (৮)। তার বাবা রইস উদ্দিন পেশায় একজন রিকশাচালক। তারা শহরের কাটলি এলাকার বাসিন্দা। সজিবদের গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার আমতলা এলাকায়।