সেভ দ্য রোড-এর জাতীয় সম্মিলন ২৫ অক্টোবর

আকাশ- সড়ক-রেল ও নৌ পথকে নিরাপদ করার জন্য নিবেদিত স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন সেভ দ্য রোড-এর জাতীয় সম্মিলন আগামী ২৫ অক্টোবর শুকবার সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ ভবনের দ্বিতীয় তলার মিলনায়তনে উক্ত আয়োজনে প্রধান অতিথি থাকবেন সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খান এমপি। সভাপতিত্ব করবেন সেভ দ্য রোড-এর চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম। সঞ্চালনা করবেন প্রতিষ্ঠাতা ও ভাইস চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী। বাৎসরিক প্রতিবেদন পাঠ করবেন মহাসচিব শান্তা ফারজানা।
উল্লেখ্য, সেভ দ্য রোড ২০০৭ সালের ২৮ আগস্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে তৎকালিন শিক্ষক নেতা অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, মোমিন মেহেদী, শান্তা ফারজানা, পবন রশিদ সহ স্বেচ্ছাসেবি সমমনাদেরকে নিয়ে আত্মপ্রকাশ করে।  এরপর থেকে আকাশ- সড়ক-রেল ও নৌ পথকে নিরাপদ করার জন্য নিবেদিত থেকে কাজ করে আসছে। সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন, প্রতিবেদন পাঠ, সংবাদ সম্মেলন, মতবিনিময় সহ বিভিন্ন কর্মসূচীর পাশাপাশি সেচ্ছাসেবি এই সংগঠনের মনিটরিং টিংম গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ, হাইওয়ে পুলিশ ও বিভিন্ন জেলা উপজেলায় গঠিত সেভ দ্য রোড-এর শাখায় দায়িত্বপালনকারী সেচ্ছসেবিদের তথ্যর উপর ভিত্তি করে প্রতি বছর ২ টি প্রতিবেদন নির্মাণ করে গণমাধ্যমে উপস্থাপন করে। সেভ দ্য রোড-এর পক্ষ থেকে গত ১২ বছর যাবৎ ৪ পথ নিরাপদ করতে সেভ দ্য রোড-এর ৭ দফা দাবী নিয়ে এগিয়ে চলা অব্যহত রয়েছে ছাত্র-যুব-জনতা-আবাল-বৃদ্ধ-বণিতার ঐক্যবদ্ধতায়। আর সেই ৭ দফা হলো- ১. মিরেরসরাই ট্রাজেডিতে নিহতদের স্মরণে ১১ জুলাইকে ‘নিরাপদ পথ দিবস’ ঘোষণা করতে হবে। ২. ফুটপাত দখলমুক্ত করে যাত্রীদের চলাচলের সুবিধা দিতে হবে। ৩. সড়ক পথে ধর্ষণ-হয়রানি রোধে ফিটনেস বিহীন বাহন নিষিদ্ধ এবং কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণি উত্তীর্ণ ও জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যতিত চালক-সহযোগি নিয়োগ ও হেলপার দ্বারা পরিবহন চালানো বন্ধে সংশ্লিষ্ট সকলকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। ৪. স্থল-নৌ-রেল ও আকাশ পথ দূর্ঘটনায় নিহতদের কমপক্ষে ১০ লাখ ও আহতদের ৩ লাখ টাকা ক্ষতি পূরণ সরকারীভাবে দিতে হবে।  ৫. ‘ট্রান্সপোর্ট ওয়ার্কার্স রুল’ বাস্তবায়নের পাশাপাশি সত্যিকারের সম্মৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে ‘ট্রান্সপোর্ট পুলিশ ব্যাটালিয়ন’ বাস্তবায়ন করতে হবে। ৬. পথ দূর্ঘটনার তদন্ত ও সাজা ত্বরান্বিত করণের মধ্য দিয়ে সতর্কতা তৈরি করতে হবে এবং ট্রান্সপোর্ট পুলিশ ব্যাটালিয়ন গঠনের পূর্ব পর্যন্ত হাইওয়ে পুলিশ, নৌ পুলিশ সহ সংশ্লিষ্টদের আন্তরিকতা-সহমর্মিতা-সচেতনতার পাশাপাশি সকল পথের চালক-শ্রমিক ও যাত্রীদের আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। সকল পরিবহন চালকের লাইসেন্স থাকতে হবে। ৭. ইউলুপ বৃদ্ধি, পথ-সেতু সহ সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয়ে দূর্নীতি প্রতিরোধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যাতে ভাঙা পথ, ভাঙা সেতু আর ভাঙা কালভার্টের কারণে আর কোন প্রাণ যেন দিতে না হয়।