পার্বতীপুরে ২১ বছর পর উম্মুক্ত পদ্ধতিতে ভাতাভোগী বাছাই


সোহেল সানী : সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচীর আওতায় দিনাজপুরের পার্বতীপুরে উম্মুক্ত পদ্ধতিতে বয়স্ক, বিধবা, স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ও অসচ্ছল প্রতিবন্ধী বাছাইয়ের মাধ্যমে নতুন ভাতাভোগীদের তালিকা তৈরীর কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

এ উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় উপজেলার মন্মথপুর ইউনিয়ন পরিষদ চত্তরে ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের ভাতাভোগী বাছাই কার্যক্রমের উদ্ধোধন করেন- পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো: হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা তাপস রায়। কার্যক্রমের শুরুতে সমাজসেবা কর্মকর্তা ছাড়াও বক্তব্য রাখেন- উপজেলা পরিষদের ভাইসচেয়ারম্যান আমিরুল মোমিনীন, রুকশানা বারী রুকু ও মন্মথপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজগার আলী প্রমুখ।

উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা তাপস রায় বলেন, বর্তমান বাছাই কার্যক্রমের আলোকে চলতি অর্থ বছরে মন্মথপুর ইউনিয়নে বয়স্ক ভাতায় ৮৭, বিধবা ভাতায় ৬৭ ও প্রতিবন্ধী ভাতায় ২১০ সহ মোট ৩৬৪ জনকে নতুন ভাতার তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করা হবে। একই সময়ে উপজেলার ১০ ইউনিয়ন ও এক পৗরসভা মিলে মোট বয়স্ক ভাতায় ৯০০, বিধবা ভাতায় ৭৪০ ও প্রতিবন্ধী ভাতায় ১ হাজার ৪৬৫ জনকে নতুন ভাতার তালিকা অন্তর্ভূক্ত করা হবে। এ নিয়ে পার্বতীপুর উপজেলায় পুরাতন ১৬ হাজার ৬২৩ জন ও নতুন ৩ হাজার ১০৫ জন মিলে মোট ভাতাভোগী ব্যক্তির সংখ্যা দাড়াবে ১৯ হাজার ৭২৮ জন।

জানা গেছে, ১৯৯৭-৯৮ অর্থ বছরে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসুচীর আওতায় বাংলাদেশে প্রথম সরকারি উদ্যোগে দরিদ্র জনগোষ্ঠি কল্যানে বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতা চালু করা হয়। কর্মসূচীর প্রবিধি অনুসারে শুরু থেকে উম্মুক্ত পদ্ধতিতে ভাতাভোগীদের তালিকা প্রনয়ণের নির্দেশনা থাকলেও এত দিন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সুপারিশে তালিকা প্রস্তুত করা হতো। এতে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠায় পার্বতীপুরে উম্মুক্ত পদ্ধতিতে ভাতাভোগী বাছাই কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। #