মেট্রোরেলের প্রথম কোচ


নিউজ ডেস্ক : মেট্রোরেলের কাজ চলছে দীর্ঘদিন যাবত। অবকাঠামো তৈরি হওয়ার পর এবার যে বগিতে মানুষ দ্রুততার সঙ্গে গন্তব্যে পৌঁছুবেন, দেখা মিলল সেই বগির। উত্তরার দিয়াবাড়িতে মেট্রোরেলের একটি মক (অনুশীলনমূলক) বগি আনা হয়েছে। আজ সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) মক বগিটি কন্টেইনার থেকে নামানো হয়। দুপুরে মক বগি আনার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপপ্রধান তথ্য কর্মকর্তা মো. আবু নাছের। তিনি বলেন, ‘দেড় মাস আগে মেট্রোরেলের একটি মক বগি আনা হয়। মক বগি হওয়ায় এটি প্রদর্শন করা হবে। মূল ট্রেনে এটি যুক্ত করা হবে না।’ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল) মেট্রোরেল নির্মাণকাজ বাস্তবায়ন করছে।

ডিএমটিসিএল সূত্র জানায়, স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে ২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মেট্রোরেল উদ্বোধনের পরিকল্পনা রয়েছে। প্রথম ধাপে দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেল চালু করা হবে। এ লক্ষ্য সামনে রেখে কাজ চলছে। এরই অংশ হিসেবে দিয়াবাড়িতে নির্মিত হচ্ছে মেট্রোরেল এক্সিবিশন এন্ড ইনফরমেশন সেন্টার। এতে মেট্রোরেলের ইতিহাস তুলে ধরা হবে। আজ এখানেই মেট্রোরেলের এ মক বগিটি রাখা হয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, আগামী মার্চের শেষ দিকে এ প্রদর্শনী সেন্টার উদ্বোধন করার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। এরপর বিনামূল্যে জনসাধারণের জন্য তা উন্মুক্ত করে দেয়া হবে। তখন এ মক বগি থেকে মেট্রোরেল সম্পর্কে দেশের সর্বসাধারণ ধারণা নিতে পারবেন। এই মেট্রোরেল নির্মাণে স্বল্প সুদে ঋণ দিয়েছে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (জাইকা)। এ প্রকল্প সমীক্ষা করতে এসে ২০১৬ সালে হলি আর্টিসানে হামলার শিকার হয়ে নিহত হন সাত জাপানি। তাদের স্মৃতিও দিয়াবাড়ির মেট্রোরেল এক্সিবিশন এন্ড ইনফরমেশন সেন্টারে স্থান পাবে। #