ডিমলায় লটারীর মাধ্যমে রাস্তার কাজের জন্য দুঃস্থ নারী কর্মীদের নির্বাচন


ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তর উপজেলা প্রকৌশলীর অধিনে পল্লী কর্মসংস্থান ও সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ কর্মসূচী-৩ (আরইআরএমপি-৩) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ইউনিয়ন সড়ক রক্ষণাবেক্ষণের জন্য নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে দশ জন করে দুঃস্থ অসহায় বিধবা নারী কর্মী নিয়োগে জনসমূক্ষে উন্মুক্ত ভাবে লটারীর মাধ্যমে নির্বাচন করা হয়েছে।

গতকাল সকাল ১১টায় উপজেলার ৮নং ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে ১ থেকে ৯ নং ওয়ার্ডের প্রায় শতাধিক দুঃস্থ ও বিধবা নারীদের অংশগ্রহণে উন্মুক্ত ভাবে লটারীর মাধ্যমে ১০ জন নারী কর্মীদের নির্বাচন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়শ্রী রাণী রায় এ লটারীর কার্যক্রম পরিচালনা করে দুঃস্থ অসহায় স্বামী পরিতক্তা ও বিধবা মহিলাদের নর্বাচন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান, উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী জিকরুল আমিন পাটয়ারী, এলজিইডি সাব এ্যাসিসট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার শওকত কবীর, এলজিইডি সিও আশাদুজ্জামান মানিক, ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা শফিকুল ইসলাম সহ সাংবাদিকবৃন্দ, ইউপি সদস্য বৃন্দ।

লটারী অনুষ্ঠিত হওয়ার পূর্বে সংক্ষিপ্ত এক আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন- এ লটারীর আওতায় শুধু তারাই থাকবে যারা সরকারী যেকোন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। পাশাপাশি তিনি মহিলাদের সংসার জীবনের সুখ ও সমৃদ্ধি উত্তরনের লক্ষ্যে পরামর্শ প্রদান করেন।

উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বলেন- কোন ধরনের আর্থিক লেনদেন ছাড়া বিনামূল্যে ৪০ থেকে ৪৫ বছরের বয়সের মধ্যে অসহায় দুঃস্থ বিধবা মহিলাদের নির্বাচন করার জন্য ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে মাইকিং এবং হাটে ঢোল শরৎ এর মাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের যে কোন কাজে স্বচ্ছতার ধারা অব্যাহত রাখার ব্যাপারে উপস্থিত মহিলাদের উদ্দ্যেশে বলেন, আমি আপনাদের সহযোগিতা একান্ত ভাবে কামনা করছি। আপনারা সহযোগিতা করলে তাহলেই পাব একটি মডেল পরিষদ উপহার দিতে। #