ছাতকে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে সভা


ছাতক প্রতিনিধিঃ
ছাতকে নভেল করোনা ভাইরাস সম্পর্কে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেনীর কর্মকর্তাদের নিয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এ সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলা পরিষদের হলরুমে সভা না করে পরিষদের খোলা মাঠে ৩ ফুট দুরত্ব বজায় রেখে সকলেই এই সভায় অংশ নেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফজলুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত মো. লাহিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ রাজীব চক্রবর্ত্তী, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পুলিন রায়, ইউপি চেয়ারম্যান আওলাদ হোসেন মাষ্টার, মো. গয়াস আহমদ, আব্দুল হেকিম, অদুদ আলম, দেওয়ার পীর আব্দুল খালিক রাজা, সাইফুল ইসলাম, আবুল হাসনাতসহ উপজেলার বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তাবৃন্দ।
জরুরী ওই সভায় বক্তরা বলেন, সংক্রামক ব্যাধি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে গণসচেতনতা বৃদ্ধিতে লিফলেট বিতরণ ও করণীয় সম্পর্কে বিফ্রিং করা হয়েছে। উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকায় সতর্কতামূলক মাইকিং করা হয়েছে। এরই মধ্যে ৬শ’র অধিক প্রবাসী বিভিন্ন দেশ থেকে এসেছেন। বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের অনেকেই ১৪দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা থাকলেও অনেকেই তা মানছেন না। এবিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে প্রতিটি ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে পৃথক কমিটি গঠন করা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের সতর্ক বার্তায় গণজমায়েত, সভা-সমাবেশ, ওরস, ওয়াজ মাহফিল, নাম কীর্ত্তনসহ ধর্মীয় সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। #
ছাতক প্রতিনিধিঃ
ছাতকে নভেল করোনা ভাইরাস সম্পর্কে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেনীর কর্মকর্তাদের নিয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এ সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলা পরিষদের হলরুমে সভা না করে পরিষদের খোলা মাঠে ৩ ফুট দুরত্ব বজায় রেখে সকলেই এই সভায় অংশ নেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফজলুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত মো. লাহিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ রাজীব চক্রবর্ত্তী, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পুলিন রায়, ইউপি চেয়ারম্যান আওলাদ হোসেন মাষ্টার, মো. গয়াস আহমদ, আব্দুল হেকিম, অদুদ আলম, দেওয়ার পীর আব্দুল খালিক রাজা, সাইফুল ইসলাম, আবুল হাসনাতসহ উপজেলার বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তাবৃন্দ।
জরুরী ওই সভায় বক্তরা বলেন, সংক্রামক ব্যাধি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে গণসচেতনতা বৃদ্ধিতে লিফলেট বিতরণ ও করণীয় সম্পর্কে বিফ্রিং করা হয়েছে। উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকায় সতর্কতামূলক মাইকিং করা হয়েছে। এরই মধ্যে ৬শ’র অধিক প্রবাসী বিভিন্ন দেশ থেকে এসেছেন। বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের অনেকেই ১৪দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা থাকলেও অনেকেই তা মানছেন না। এবিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে প্রতিটি ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে পৃথক কমিটি গঠন করা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের সতর্ক বার্তায় গণজমায়েত, সভা-সমাবেশ, ওরস, ওয়াজ মাহফিল, নাম কীর্ত্তনসহ ধর্মীয় সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। #