করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে গনভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক ও অন্যান্য কর্মকর্তা


গাইবান্ধা প্রতিনিধি
দেশের ৬৪টি জেলার ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের অংশ হিসেবে গাইবান্ধার চলমান করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে গনভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে এক মত বিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১০টা গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সে মত বিনিময় করেন, জেলা প্রশাসক মো: আবদুল মতিন, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম ও লে.কর্ণেল ফারজানা বাশার। এসময় সিভিল সার্জন ডাঃ এবিএম আবু হানিফ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু বক্কর সিদ্দিক, গাইবন্ধা পৌর মেয়র শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহ সারোয়ার কবির সহ অন্যান্য কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক গাইবান্ধার পরিস্থিতি প্রসঙ্গে বলেন, দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমন প্রতিরোধ কার্যক্রমের প্রেক্ষাপটে জেলায় করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় সেনাবাহিনী,আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং স্থানীয়জন প্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে জনসাধারনের সামাজিক দুরত্ব জেলার সর্বত্র মাইকিং নিশ্চিতকরণ, জনসচেতনতা বৃদ্ধি, দু:স্থদের জন্য সহায়তা কার্যক্রম সহ বাজার মুল্য মনিটরিং এর মাধ্যমে সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও স্থিতিশীল বজায় রাখা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, যদি করোনা ভাইরাসে নতুন রোগী সনাক্ত হয় তবে জরুরী প্রয়োজনে গাইবান্ধা আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা দলের ট্রেনিং সেন্টার ১০০ রোগীর রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, হাসপাতাল গুলোতে হাছি, কাশি রোগীদের বিশেষভাবে চিকিৎসাদানের ব্যবস্থা গ্রহণ, হাসপাতালগুলোতে আউটডোরে সার্বক্ষনিক রোগীদের চিকিৎসা দানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা নিশ্চিত করা হয়েছে। শহরের রাস্তা –ঘাট, বসত বাড়ি, অফিস আদালত প্রাঙ্গন সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য ¯েপ্র করাসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষের দু:সময়ে পাশে থেকে সেবা দিতে হবে। জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। কেহ যেন অভূক্ত না থাকে। সেদিকে লক্ষ্য রেখে সরকার কাজ করছে। তিনি বলেন, গুজুবে কান দিবেন না গুজবকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।