ডিবি পুলিশের হাতে আটক মামুনের কোটি টাকার সম্পদ জব্দ

শাহাজুল ইসলাম, পার্বতীপুর :
পার্বতীপুরের মামুন ও ইমরানকে ঢাকায় অবৈধ ক্যামিকেলের ব্যবসা করার অভিযোগে ঢাকা ডিবি পুলিশ তাদেরকে আটক করেছে। তাদের অফিস হুমায়ন রোড মোহাম্মদ পুর থেকে অবৈধ ক্যামিকেল জব্ধ করেছেন।

জানা যায়, খানজার আলী মামুন দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ ভাবে ক্যামিকেল ও রাসায়নিক পদার্থের ব্যবসা করত বলে হুমায়ন রোড এলাকার কয়েকজন বিষয়টি জানায়। সম্প্রতি ডিবি পুলিশ ঢাকা হুমায়ন রোড মোহাম্মদ পুর অফিসে অভিযান চালিয়ে অবৈধ মালামাল জব্দ করে ইমরান নামে একজনকে আটক করে। ইমরান এর বাড়ি দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার পৌর এলাকার সাহেব পাড়া মহল্লায়। সে আব্দুল মতিন সরকারের ছেলে। ১জুলাই রাতে দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার জাহানাবাদ এলাকা থেকে খানজার আলী মামুন (৩২) কে ডিবি পুলিশ আটক করেছে। আটককৃত মামুনের বাড়ি পৌর এলাকার সাহেব পাড়া মহল্লায়। তার বাবা আবুল কালাম আজাদ পৌর সভার সাবেক কাউন্সিলর।

পার্বতীপুর মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মোখলেছুর রহমান আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। । এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, খানজার আলী মামুন ঢাকা কলেজ থেকে লেখাপড়া শেষ করে ঢাকায় ব্যবসা করেন। তার বন্ধু জানায় মামুন ঢাকা কলেজে পড়া লেখার সময় ছাত্রদলের একজন সক্রিয় কর্মি ছিল। এলাকায় মানুন অল্প বয়সে কোটিপতি হিসাবে লোকমুখে পরিচিতি ঘটে। মসজিদ, মন্দির ও সামাজিক খেলাধুলায় বিপুল পরিমান অর্থ ব্যয় করত। পার্বতীপুর উপজেলার বাইপাস সড়কের পাশে কোটি টাকা মূল্যের জমি কেনেন। এছাড়া উপজেলার বছিরবানিয়া এলাকায় অল্প কিছু দিনের মধ্যে ইট ভাটার মালিক বনে যায়। মামুন এলাকায় চলাফেরা করত প্রাইভেট গাড়িতে। এলাকাবাসী জানায়, মামুনের বাবা ছোট খাটো ব্যবসা করে জীবন যাপন করত। মামুন হঠাৎ কোটি পতি ও বিপুল পরিমান সম্পদ এর মালিক হওয়ায় আটকের পর এলাকায় খানজার আলী মামুনকে নিয়ে গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে। #