চমেক হাসপাতালে ছাত্রলীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ১৪


অনলাইন রিপোর্ট : চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে চার পুলিশ সদস্যসহ ১৪ জন আহত হয়েছেন। আধিপত্য বিস্তার আর স্লোগান দেওয়াকে কেন্দ্র করে আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে চমেক হাসপাতালের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে যান শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। ক্যাম্পাসে তাঁর যাওয়াকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বিরাজ করছিল সকাল থেকেই। ক্যাম্পাসে অবস্থান নেয় বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির ও মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের অনুসারীরা।

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. হুমায়ুন কবিরের সঙ্গে দেখা করে বের হলে ছাত্রলীগের এ দুই গ্রুপ পাল্টাপাল্টি স্লোগান দেয়। একপর্যায়ে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষে ছাত্রলীগের ১০ জনসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল হক ভূঁইয়া অনলাইনকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘শিক্ষা উপমন্ত্রীর ক্যাম্পাসে আসাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বিরাজ করছিল সকাল থেকেই। তাই আমরা আগে থেকে প্রস্তুতি নিয়েছি। অতিরিক্ত পুলিশ রেখেছি। যার কারণে সংঘর্ষে শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই দুই গ্রুপকে ছত্রভঙ্গ করে দিই।’
জহিরুল হক ভূঁইয়া আরো জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করেই ছাত্রলীগের এ সংঘর্ষ হয়েছে। এখন মেডিকেল কলেজের চারপাশে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা রয়েছে। #