পার্বতীপুরে ইটভাটার সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হুমকি


পার্বতীপুর প্রতিনিধি :
পার্বতীপুর উপজেলার হামিদপুর ইউনিয়নে অবস্থিত ইটভাটার সংবাদ পত্রিকায় প্রকাশ করার পর এরই জের ধরে সততা ব্রিক্স ঢেঁড়ের হাট ইটভাটার মালিক আমিনুল ইসলাম সাংবাদিক মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ায় পার্বতীপুর মডেল থানায় গত ১০/১১/২০২০ ইং তারিখে একটি এজাহার দায়ের করেন। পার্বতীপুর উপজেলার হামিদপুর ইউপির পাতিগ্রামের মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদ এর পার্বতীপর মডেল থানায় গত ১০/১১/২০২০ ইং তারিখে সততা ব্রিক্স এর মালিক মোঃ আমিনুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত এজাহার সূত্রে জানা যায়, সাংবাদিক আসাদুজ্জামান দৈনিক গণমুক্তি পত্রিকায় গত ০৯ নভেম্বর “একই উপজেলায় ৫১ ইট ভাটা, দেখার কেউ নেই” শিরনামে একটি প্রকাশ করার পর সততা ব্রিক্স এর মালিক তাকে লাঞ্চিত করে এবং বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে।

উল্লেখ্য যে, গত ১৮/১০/২০২০ ইং তারিখে ঐ এলাকায় নির্বিচারে তিন ফসলি জমি ৪০ ফুট গভির করে মাটি উত্তোলন করছেন এতে আবাদী জমি নষ্ট হচ্ছে অন্যদিকে ভূমি আইন অমান্য করা হচ্ছে। এই মর্মে হামিদপুর ইউনিয়নের খলিলপুর (করতোয়া পাড়া) গ্রামের খাইরুল ইসলাম, আব্দুল কাইয়ম, মোঃ রবিউল ইসলাম, আব্দুর রহমান, ও ওবাইদুর রহমান দিনাজপুর জেলা প্রশাসক, সহকারী পরিচালক পরিবেশ অধিদপ্তর দিনাজপুর, উপজেলা নির্বাহী অফিসার পার্বতীপর, সহকারী কমিশনার (ভূমি) পার্বতীপুর ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা পার্বতীপুর এবং চেয়ারম্যান ৯ নং হামিদপুর ইউনিয় বরাবর অভিযোগ করলে সেই অভিযোগরে পরিপেক্ষিতে দৈনিক গণমুক্তি পত্রিকার দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি হামিদপুর ইউপির খলিলপুর (করতোয়া পাড়া) এলাকায় সরেজমিনে তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে উল্লেখিত ব্যক্তি এই ন্যাক্কার জনক ঘটনা ঘটায়।

এব্যাপারে পার্বতীপর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোখলেছু রহমান এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে ইট ভাটার মালিক মোঃ আমিনুল ইসলাম এর সাথে গত কাল বৃহস্পতিবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে ফোন গ্রহণ করেন নি।

এই ন্যাক্কার জনক ঘটনায় ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাব এর সভাপতি মোঃ আফজাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান মেহেদী সহ সকল সাংবাদিকগণ তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং অপরাধীর বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।