কুড়িগ্রাম পৌরসভায় আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : কুড়িগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামীলীগ থেকে কাজিউল ইসলামকে প্রার্থীতা মনোনিত করায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করা হয়েছে। মানববন্ধনে স্বাধীনতা বিরোধী ও রাজাকারের সন্তান কাজিউল ইসলামকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে মনোনয়নপত্র বাতিল চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় কুড়িগ্রাম শহরের খেজুরের তল এলাকায় প্রায় ২হাজার নারী-পুরুষ ও মুক্তিযোদ্ধারা বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নেয়। পরে কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবে এসে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, নারী মুক্তিযোদ্ধা খুকী বেওয়া ও বছিরন, ছামসুল ইসলাম, লাভলু মিয়া প্রমুখ। বীর মুক্তিযোদ্ধা, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান, বীর মুক্তিযোদ্ধা নারী ও সচেতন পৌরবাসীর ব্যানারে প্রদানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে রাজাকার সন্তানের মনোনয়ন বাতিল করে স্বচ্ছ ইমেজের ব্যক্তিকে মেয়র পদে মনোনয়নের দাবী জানানো হয়। মানব বন্ধন অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী কাজিউল ইসলাম কর্তৃক কুড়িগ্রাম ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন মাজার ও এতিমখানার জমি বেদখলেরও অভিযোগ উত্থাপন করা হয়।

উল্লেখ্য কুড়িগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে সাবেক পৌর চেয়ারম্যান ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিউল ইসলামকে দলীয় মনোনয়নপত্র তুলে দেয়া হয়। এর আগে জেলায় তৃণমুল ভোটে এগিয়ে থাকা মোস্তাফিজার রহমান সাজু আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে স্বতন্ত্রভাবে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এছাড়াও জেলা আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত সাইদুল হাসান দুলালও স্বতন্ত্রভাবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর বাইরে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পান সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম বেবু। তাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে স্বতন্ত্রভাবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন সাবেক মেয়র ও জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহসভাপতি আবু বকর সিদ্দিক। অপরদিকে ইশা আন্দোলনের পক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন আব্দুল মজিদ।