কাবার ইমামের ওপর হামলা প্রতিহত করে প্রশংসিত সৌদি নিরাপত্তাকর্মী


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মক্কা নগরীর পবিত্র মসজিদুল হারামে জুমার সময় লাঠি হাতে ‌ইমামের ওপর ‘হামলাচেষ্টা’ প্রতিরোধ করে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত সৌদি নিরাপত্তাকর্মী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই নিরাপত্তাকর্মীকে জাতীয় বীর আখ্যায়িত করে তাঁর তাৎক্ষণিক পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসা করা হয়। গত শুক্রবার ইসলামের পবিত্র স্থান মক্কা নগরীর মসজিদুল হারাম থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত ভিডিওতে দেখা যায়, কাবার ইমাম শায়খ বান্দার বিন বালিলাহ জুমার খুতবাহ দিচ্ছেলেন। এমন সময় লাঠি হাতে এক ব্যক্তি দ্রুতবেগে মিম্বারে দিকে ছুটে যান। কিন্তু তাৎক্ষণিকভাবে নিরাপত্তাকর্মীরা তাকে ওই স্থান থেকে সরিয়ে নেন।

সৌদি ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল ওয়াতানের সূত্রে আরব নিউজের খবরে বলা হয়, পুরো ঘটনার প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানান যে, হামলাকারী নিজেকে ‘প্রতীক্ষিত মাহদি’ বলে দাবী করেন। ৪০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি সৌদির নাগরিক।

ইমামের ওপর হামলাচেষ্টা প্রহিহত করেন মসজিদুল হারামের নিরাপত্তা কর্মী মোহাম্মদ আল-জাহরানি।

মসজিদুল হারামে নিযুক্ত নিরাপত্তা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আল-জাহরানি ইমামের ওপর হামলাচেষ্টার সময় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে কুস্তি দিয়ে প্রতিরোধ করে মাটিতে ফেলে দেন। পরবর্তীতে অন্যান্য নিরাপত্তাকর্মীদের সহায়তায় হামলাকারী ব্যক্তিকে মসজিদুল হারাম থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিরাপত্তা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আল-জাহরানিকে জাতীয় বীর আখ্যায়িত করে তাঁর তাৎক্ষণিত পদক্ষেপ গ্রহণের ব্যাপক প্রশংসা করা হয়।

প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, ইহরামের কাপড় পরিহিত অভিযুক্ত ব্যক্তিকে লাঠি হাতে জুমার মিম্বারের দিকে তেড়ে আসতে দেখা যায়। মসজিদুল হারামের ইমাম শায়খ বান্দার বালিলাহ ওই সময় জুমার খুতবাহ দিচ্ছেলেন। তাৎক্ষণিকভাবে তাঁকে দূরে সরিয়ে নেওয়া হয় এবং আটকের পর তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

সূত্র : আরব নিউজ