সীমান্তবর্তী ৭ জেলায় দ্রুত লকডাউনের নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর


অনলাইন ডেস্ক : সীমান্তবর্তী সাত জেলায় দ্রুত বিশেষ লকডাউনের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রিসভা বৈঠকে আজ সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, মন্ত্রী পরিষদ সচিবকে লকডাউন দেওয়ার বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রিসভা থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘সীমান্তবর্তী জেলাগুলোতে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছে, যা উদ্‌বেগজনক। এই জেলাগুলোতে করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার কারণে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব লকডাউন দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এটা নিয়ে কাজ করছে। তবে সেসব জেলায় এখন আমের ব্যবসা চলছে, তাই পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে কখন দেওয়া হবে।’

এ ছাড়া স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, চীনের টিকা এলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘চীনা টিকা আসবে মোট দেড় কোটি। প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে তিন মাসে আসবে এই টিকা। এই টিকা প্রথমেই অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেওয়া হবে মেডিকেল শিক্ষার্থীসহ সব সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হবে।’

এ ছাড়া স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, রাশিয়ার টিকার বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শিগগিরই তা রাশিয়ায় পাঠানো হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও জানান, আজ ফাইজারের যে টিকা আসবে, তা যাদের রেজিষ্ট্রেশন আছে, তাদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে দেওয়া হবে।

এর আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে ভারতের সীমান্তবর্তী সাত জেলায় লকডাউনের সুপারিশ করেছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞ কমিটি। গত শনিবার এক বৈঠকে বিশেষজ্ঞ কমিটি নওগাঁ, নাটোর, সাতক্ষীরা, যশোর, রাজশাহী, কুষ্টিয়া ও খুলনা জেলায় লকডাউনের সুপারিশ করে। #

অনলাইন ডেস্ক : সীমান্তবর্তী সাত জেলায় দ্রুত বিশেষ লকডাউনের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রিসভা বৈঠকে আজ সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, মন্ত্রী পরিষদ সচিবকে লকডাউন দেওয়ার বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রিসভা থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘সীমান্তবর্তী জেলাগুলোতে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছে, যা উদ্‌বেগজনক। এই জেলাগুলোতে করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার কারণে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব লকডাউন দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এটা নিয়ে কাজ করছে। তবে সেসব জেলায় এখন আমের ব্যবসা চলছে, তাই পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে কখন দেওয়া হবে।’

এ ছাড়া স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, চীনের টিকা এলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘চীনা টিকা আসবে মোট দেড় কোটি। প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে তিন মাসে আসবে এই টিকা। এই টিকা প্রথমেই অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেওয়া হবে মেডিকেল শিক্ষার্থীসহ সব সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হবে।’

এ ছাড়া স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, রাশিয়ার টিকার বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শিগগিরই তা রাশিয়ায় পাঠানো হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও জানান, আজ ফাইজারের যে টিকা আসবে, তা যাদের রেজিষ্ট্রেশন আছে, তাদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে দেওয়া হবে।

এর আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে ভারতের সীমান্তবর্তী সাত জেলায় লকডাউনের সুপারিশ করেছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞ কমিটি। গত শনিবার এক বৈঠকে বিশেষজ্ঞ কমিটি নওগাঁ, নাটোর, সাতক্ষীরা, যশোর, রাজশাহী, কুষ্টিয়া ও খুলনা জেলায় লকডাউনের সুপারিশ করে। #