অর্থবছর বাজেটে যেসব পণ্যের দাম বাড়ছে


অনলাইন ডেস্ক : ২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেটে বেশ কিছু পণ্যের আয়কর, শুল্ক, ভ্যাট অথবা সম্পূরক শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। ফলে এসব পণ্যের দাম বাড়তে পারে।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদ ভবনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০২১-২০২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেন।

বাজেট পেশের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসবার বৈঠকে বাজেটের অনুমোদন দেয়া হয়।

২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেটের আকার আগের সকল বাজেটের চাইতে বড়। স্বাধীন বাংলাদেশের ৫০ তম বাজেটের অংকটা ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা।

আমদানি করা স্মার্টফোনের দাম আরেক দফা বাড়তে পারে। সঙ্গে মোবাইল সিম ব্যবহারের করে সেবা গ্রহণের বিপরীতে সম্পূরক শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এর ফলে মোবাইল ফোনে কথা বলা, বার্তা পাঠানো এবং ডেটা ব্যবহারের খরচ বেড়ে যাবে।

আমদানি করা বিলাসী পণ্য যেমন, বডি স্প্রে, প্রসাধনী পণ্য, জুস, প্যাকেটজাত খাদ্য প্রভৃতি আমদানিতেও নতুন করে শুল্ক আরোপ করার সুপারিশ করেছেন অর্থমন্ত্রী।

এছাড়া মদ-বিয়ার, সিগারেট, টাইলস ও স্যানিটারিওয়্যার, শিশুদের থিম পার্কের রাইডের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

এরমধ্যে মদ-বিয়ার আমদানিতে ২০ শতাংশ অগ্রিম আয়কর আরোপ করা হয়েছে।

প্রতিবছরের মতো সিগারেটের মূল্যস্তর ও সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। এবার সম্পূরক শুল্ক না বাড়ালেও প্রিমিয়াম কোয়ালিটির সিগারেটের মূল্যস্তর বাড়ানো হয়েছে। তাই এ ধরনের সিগারেটের দাম বাড়তে পারে।

টাইলস ও স্যানিটারিওয়্যার পণ্যের পরিবেশক ও ডিলারদের নিট কমিশনের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

থিম পার্কের রাইড এমিউজমেন্ট পার্ক স্থাপনের রাইডসামগ্রীর ওপর ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে।

বাজেট পেশের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রীসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় এবং মন্ত্রীসভা বাজেটের অনুমোদন দিয়েছে।

২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেটের আকার আগের সকল বাজেটের চাইতে বড়। স্বাধীন বাংলাদেশের ৫০ তম বাজেটের অংকটা ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা।

২০২১-২০২২ অর্থ বছরের বাজেটে যেসব পণ্যের দাম বাড়ছে- এছাড়া আমদানি করা স্মার্টফোনের দাম আরেক দফা বাড়তে পারে। সঙ্গে মোবাইল সিম ব্যবহারের করে সেবা গ্রহণের বিপরীতে সম্পূরক শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এর ফলে মোবাইল ফোনে কথা বলা, বার্তা পাঠানো এবং ডেটা ব্যবহারের খরচ বেড়ে যাবে।

আমদানি করা বিলাসী পণ্য যেমন: বডি স্প্রে, প্রসাধনী পণ্য, জুস, প্যাকেটজাত খাদ্য প্রভৃতি আমদানিতেও নতুন করে শুল্ক আরোপ করার সুপারিশ করেছেন অর্থমন্ত্রী।

এছাড়া মদ-বিয়ার, সিগারেট, টাইলস ও স্যানিটারিওয়্যার, শিশুদের থিম পার্কের রাইডের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

এরমধ্যে মদ-বিয়ার আমদানিতে ২০ শতাংশ অগ্রিম আয়কর আরোপ করা হয়েছে।

প্রতিবছরের মতো সিগারেটের মূল্যস্তর ও সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। এবার সম্পূরক শুল্ক না বাড়ালেও প্রিমিয়াম কোয়ালিটির সিগারেটের মূল্যস্তর বাড়ানো হয়েছে। তাই এ ধরনের সিগারেটের দাম বাড়তে পারে।

টাইলস ও স্যানিটারিওয়্যার পণ্যের পরিবেশক ও ডিলারদের নিট কমিশনের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

থিম পার্কের রাইড এমিউজমেন্ট পার্ক স্থাপনের রাইডসামগ্রীর ওপর ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। #