সাতক্ষীরায় শনিবার থেকে সাত দিনের লকডাউন


অনলাইন ডেস্ক : সাতক্ষীরা জেলায় আগামী শনিবার থেকে এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হার আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পেতে থাকায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে তাঁর সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত করোনা প্রতিরোধ বিষয়ক এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৈঠক সূত্র জানিয়েছে, কয়েকদিনের গড় হিসেবে সাতক্ষীরায় করোনা শনাক্তের হার ৫৭ শতাংশ। অপরদিকে করোনা পজিটিভ নিয়ে এখন পর্যন্ত হাসপাতালে এবং প্রাতিষ্ঠানিক ও পারিবারিক কোয়ারেন্টিনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২৪৫ জন।

জেলা প্রশাসক জানান, লকডাউনের এক সপ্তাহে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য কেনাকাটার জন্য সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত দোকানপাট খোলা থাকবে। তবে ফার্মেসি, হাসপাতাল, ক্লিনিক, অ্যাম্বুলেন্স ও বিদ্যুৎ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান সব সময় খোলা থাকবে। একইসঙ্গে ভোমরা স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি স্বাভাবিক থাকবে। তবে বন্দরের দোকানপাট বন্ধ থাকবে। দূরপাল্লা ও আন্তজেলা বাস চলাচল এ সময় বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে মোটরসাইকেল চলাচলও। সাতক্ষীরার সঙ্গে যশোর ও খুলনার সড়ক যোগাযোগে পয়েন্টগুলোতে পুলিশ চেকপোস্ট থাকবে। এ সময় সীমান্তে পারাপার বন্ধ থাকবে। শহরে থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিধি-নিষেধ অমান্যকারীদের জরিমানা করা হবে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শাফায়েত জানান, করোনা সংক্রমণরোধে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান, বিজিবির ৩৩ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আল মাহমুদ, সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাতেমাতুজ্জোহরা।

বৈঠকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন সাতক্ষীরা-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক ও সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। #