কুড়িগ্রামের শিশুসহ ৯ রোহিঙ্গা আটক


মোস্তাফিজুর রহমান কুড়িগ্রাম কুড়িগ্রাম : মানবতার শত্রু পাঁচারকারী চক্রের প্রতারনায় ভারতে পাচারকালে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে একই পরিবারের ৭ জনসহ ৯জন রোহিঙ্গাকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিসট্রেট উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি (এসিল্যান্ড)। বুধবার রাত ৮টার দিকে ভুরুঙ্গামারীর শিলখুড়ি ইউনিয়নের পাগলারহাট বাজার থেকে অটোরিক্সা যোগে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে আসার সময় তাদেরকে আটক করে সহকারী কমিশোর (ভূমি) জাহাঙ্গীর আলমে নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।এসময় অটোকে থামানো হলে অটোরিক্সা থেকে দু’জন যাত্রি নেমে পালিয়ে যায়। অটো চালকসহ মোট ১২জন যাত্রী ছিল।

আটকরা হলেন- বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১৮-এর একই পরিবারের সাবিকা বেগম (৫০), আছমিরা (১৮), নাদিম (১৫), রিয়াজ (১০), তাছমিনা আরা (৭), রুমাইয়া (৫) ও ইসমাইল (৩)। অপর দু’জন হলেন টেংরাখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১৩-এর ফাইয়া সালাব (২৭) ও কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প-২-এর ইসমাইল হোসেন (১৮)। সহকারী কমিশন (ভূমি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, লকডাউন কার্যক্রম বাস্তবায়নকালে দেখা যায় একটি অটোরিকশায় কিছু লোক গাদাগাদি করে যাচ্ছে। রিকশাটি থামিয়া জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাদের কথাবার্তায় সন্দেহ হয়। অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে সলিম নামের এক ব্যক্তির মধ্যস্ততায় তারা ভারত যাওয়া উদ্দেশ্য রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালিয়ে এসেছে। পরে তাদেরকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর হোসেন রোহিঙ্গা আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তাদেরকে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আইনী প্রক্রিয়ায় তাদের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হবে।