বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রয়েছে


দিনাজপুর প্রতিনিধি : দেশের উত্তর অঞ্চলের দিনাজপুরের পাবর্তীপুর উপজেলার বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রয়েছে।

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লা সংকটের মধ্যেও স্বাস্থ্য বিধি মেনে তিনটি ইউনিট থেকে নিরবিচ্ছিন বিদ্যুৎ উৎপাদন অব্যাহত রয়েছে। বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কর্মরত ১২০ জন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর করোনার মধ্যেও তাদের চাকুরীর প্রমোশনের সহযোগীতা করেছেন বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী এস.এম ওয়াজেদ আলী সরদার ও বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ। বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে স্বাস্থ্য বিধি মানার কারণে এখানে কেউ করোনা আক্রান্ত হয় নিয়। ২০২০ ইং সালে মার্চ মাসে সারা বিশ্বের ন্যায় কোভিড-১৯ করোনা শুরু হলে স্বাস্থ্য বিধি মেনে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রত্যেকটি কর্মকর্তা কর্মচারীকে সর্তকতার সাথে কাজ করার পরামর্শ দিলে তারা সঠিক ভাবে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কার্যক্রম পরিচালনা করেন। বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপাদিত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রেডে সরবরাহ করার ফলে চলতি বছর ইরি বোর মৌসুমে বিদ্যুৎ পেতে উত্তর অঞ্চলের ১৬টি জেলায় কৃষকদের কোন সমস্যা হবে না। এতে উত্তর অঞ্চলের ১৬টি জেলায় ইরি বোর ধানের উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে। অপর দিকে বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করার ফলে উত্তর অঞ্চলের ১৬টি জেলায় ছোট বড় শিল্প কল কারখানায় উৎপাদন অনেক অংশে বৃদ্ধি পেয়েছে।

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী এস.এম ওয়াজেদ আলী সরদার ২০২০ ইং সালে মার্চ মাসে বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে যোগদান করার পর তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের তিনটি ইউনিটকে সচল করে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়িয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রেখেছেন। বর্তমান বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে প্রায় ৪ হাজার এর ও বেশি মেট্রিক টন কয়লা তিনটি ইউনিটে পর্যাক্রমে ব্যবহার করছেন। এতে অন্যান্য ইউনিটগুলি ওভার হোলিং করে সচল করেছেন। চীনা কোম্পানি এবং তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে দক্ষ প্রকৌশলী ও শ্রমিকেরা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটির বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধিতে ব্যপক সহায়তা অব্যাহত রেখেছে। বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক কেন্দ্রটি সচল রাখতে সবসময় দক্ষ শ্রমিক ও প্রকৌশলীরা কাজ করছেন।

এ বিষয়ে বড়পুকুরিয়ার কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী এস.এম ওয়াজেদ আলী সরদার সাংবাদিকদের কে জানান, আমি যোগদান করার পর বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের যে সব বড় ধরনের সমস্যা ছিল তা সমাধান করেছি। বর্তমান মাননীয় প্রধান মন্ত্রী সারা বাংলাদেশে শিল্পকলকারখানা ও কৃষিতে উৎপাদন বাড়াতে বিদ্যুতের ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। যা অতীতে কেউ করতে পারেনি। তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লার সরবরাহ কম থাকলেও বিদ্যুৎ উৎপাদনে কোন সমস্যা নেই। চলতি বছর দুটি ইউনিটের ওভার হোলিং এর কাজ শেষ করে ধারাবাহিক ভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়িয়ে সরবরাহ করা হচ্ছে। বিদ্যুৎ সরবরাহে যাতে কোন সমস্যা না হয়, সেদিকে লক্ষ্য রেখে তিনটি ইউনিট থেকে আমরা বিদ্যুৎ সরবরাহ করছি।

এছাড়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বঙ্গবন্ধুর শতবর্ষ উপলক্ষে মুজিব কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে। শহীদ মিনার ও মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে। তিনি দায়িত্ব ভার পাওয়ার পর বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে আসছেন। এতে কর্মকর্তা কর্মচারীরা তার প্রসংশা করেছেন। ইতি পূর্বে বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটির অবস্থা অত্যান্ত খারাপ ছিল। যা এক মাত্র দায়িত্বরত এই প্রধান প্রকৌশলী সব সমাধান করেছেন।